কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় | How to earn money 2022

আসসালামু আলাইকুম , টাকা টাকা টাকা  , দুনিয়াতে যত অপরাধ হচ্ছে সবকিছু এই টাকার জন্য। আপনি আমি সবাই শুধু টাকার পিছনে ছুটে বেড়াই।

আপনি যদি গুগোল কিংবা ইউটিউব এ কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় লিখে সার্চ করেন তাহলে আপনার সামনে অগণিত আর্টিকেল ভিডিও শো হবে। কিন্তু আপনি হয়তো আপনার মনের মত টাকা আয় করার উপায় খুঁজে পান নাই।

যাই হোক , যারা জানতে চাচ্ছেন কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় তাদের জন্য আজকের পোস্ট। আজ আমি আপনাকে টাকা ইনকাম করার এমন কিছু উপায় শেয়ার করব যেগুলো অনেকেই হয়তো জানেন না। ।

কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় সেটা জানার আগে আপনাকে এটা অবশ্যই জানতে হবে যে  টাকা ইনকাম করবেন কোথায় থেকে।  অর্থাৎ কোথায় গিয়ে কি করলে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আসলে টাকা ইনকাম করা সাধারণত দুইটা জায়গায় আছে । একটা হচ্ছে অফলাইনে টাকা ইনকাম আর একটা হচ্ছে অনলাইনে টাকা ইনকাম।

এই দুইটা জায়গারই কিছু কিছু উপায় নিচে তুলে ধরা হলো –

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায় ?

যারা ভাবতেছেন কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় তারা চাইলে অনলাইনে কিছু টুকিটাকি কাজ করে ভালো পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার হাজার হাজার উপায় আছে যেগুলো হয়তো একটা আর্টিকেলে বলে বোঝানো সম্ভব নয়।

যাইহোক এর মধ্য থেকে আমি এমন কিছু টাকা ইনকাম করার উপায় বলতেছি যেগুলো আমার কাছে সহজ মনে হয়েছে-  এবং এই কাজগুলো নতুনরা কোনো অভিজ্ঞতা ছাড়াই করতে পারবেন।

১. আর্নিং অ্যাপ্লিকেশন এর কাজ করা –

যারা নিজে ইনকাম করে মোবাইলের এমবি খরচ চালাতে চাচ্ছেন তাদের জন্য এই কাজটি একদম পারফেক্ট।

আর্নিং অ্যাপ্লিকেশনে সবাই কাজ করতে পারবেন। যারা অনলাইনে কিছুই বোঝেন না তারাও এখানে কাজ করে কিছু টাকা আয় করতে পারেন। যদি আপনি একদম নতুন হয়ে থাকেন এবং অনলাইন থেকে টাকা আয় করার উপায় খুঁজে থাকেন তাহলে এই কাজটি বেছে নিতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ   হোয়াটস অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম- হোয়াটসঅ্যাপ থেকে সত্যি কি টাকা ইনকাম করা সম্ভব?

আর হ্যাঁ এখানে একটা কথা বলে রাখি আর্নিং অ্যাপ্লিকেশন এ কাজ করে আপনি হাজার হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন না। তবে আপনার মোবাইলের ইন্টারনেট খরচ খুব সহজে চালাতে পারবেন।

২. রিসেলিং করে আয়

অনলাইন থেকে টাকা আয় করার জন্য এই কাজটি করার জন্য ও তেমন কোনো অভিজ্ঞতার প্রয়োজন হয় না। আপনি যদি অনলাইনে একদম নতুন হয়ে থাকেন বাম  টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে রিসেলিং এই কাজটা করতে পারেন।

রীসেলিং মানে হচ্ছে কোন কিছু পুনরায় সেল করা।

অর্থাৎ কোন জিনিস একবার কিনে পুনরায় সেটা আবার অন্য কারো কাছে বিক্রি করা । রিসেলিং কাজটা আপনি যে কোন জিনিসের উপরেই করতে পারেন।

সেটা হতে পারে ফেসবুকের মাধ্যমে ,ফেসবুক গ্রুপ ফেসবুক পেইজ, আবার ফেসবুক আইডি।

এগুলো ছাড়াও আপনি চাইলে অনলাইনে বিভিন্ন প্রোডাক্ট এর  অর্ডার কনফার্ম করেও সেখান থেকে কমিশন পেতে পারেন।

যাইহোক রীসেলিং ব্যবসাটা অনেক ভাল। এবং আপনি এই কাজটা করার জন্য “ফেসবুক” সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করতে পারেন।

৩. ব্লগ লিখে আয় –

নতুনদের জন্য অনলাইন থেকে আয় আরো একটি ভালো উপায় হচ্ছে ব্লগ লিখে আয় করা । এই কাজটা করে এখন অনেক যুবক-যুবতী স্বাবলম্বী । ব্লগ লেখার জন্য আপনার তেমন কোনো অভিজ্ঞতা লাগবেনা।

শুধু অন্যদের ব্লগ পড়বেন এবং বোঝার চেষ্টা করবেন যে তারা কিভাবে লেখে। এভাবে নিজে নিজে প্র্যাকটিস করতে করতে একসময় আপনি খুব ভালো একজন রাইটার হতে পারবেন।

আর যদি একজন প্রফেশনাল রাইটার হয়ে যান। তাহলে এই লেখালেখি করে অনেক টাকা উপার্জন করতে পারবেন ।

freelancer.com upwork.com fiver.com এসব ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইটও আপনার লেখা ব্লগ বিক্রি করা টাকা নিতে পারেন। অথবা ব্যক্তিগতভাবে কারো সাথে তার ওয়েবসাইটে ব্লগে লেখালেখি করেও টাকা আয় করতে পারেন । ব্লগিং করে কিভাবে আয় করতে হয় বিস্তারিত পড়ুন এখান থেকে ।

৪. অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন বানিয়ে আয়

আপনার মনে যদি কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় এই প্রশ্নটিই ঘুরঘুর করে তাহলে অ্যান্ড্রয়েড আপনি অ্যাপ্লিকেশন বানানোর কাজে লেগে পড়ুন । তবে আগেই বলে রাখি অ্যাপ্লিকেশন বানানোর জন্য আপনার অভিজ্ঞতার প্রয়োজন হবে । এর জন্য ভালোভাবে অ্যান্ড্রয়েড স্টুডিওর কাজ শিখতে হবে ।

আরো পড়ুনঃ   নিজে ভিডিও না বানিয়ে ইউটিউব থেকে আয় করুন

তাহলে আপনি প্রফেশনালভাবে অ্যাপস বানাতে পারবেন।

আর যদি আপনি একবার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন বানানোর পটু হয়ে যান। তাহলে এখান থেকে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করা কোন ব্যাপারই না।

৫. ইউটিউবিং করে আয়

কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় অনলাইনের মাধ্যমে এইসব আর্টিকেল বা ভিডিওর মধ্যে ইউটিউবিং এই বিষয়টা অবশ্যই ইনক্লুড থাকে ।

আর থাকবেই না কেন কারন এখন ইউটিউবিং করে যে অনেক টাকা ইনকাম করা যায়। এখানে কাজ করতে আপনার কোনো কোর্স ও করা লাগবে না আবার টাকা ও ইনভেস্ট করতে হবে না।

শুধু আপনার হাতের মোবাইল ফোনটি দিয়ে ভিডিও বানিয়ে ইউটিউবে আপলোড করা শুরু করেন।

যদি আপনি নিয়মিত ভিডিও আপলোড চালিয়ে যেতে পারেন তাহলে একদিন আপনি এখান থেকে লাখ লাখ ডলার ইনকাম করবেন । শুধু আপনার ধৈর্য থাকতে হবে।

শুধু এই কয়টি ছাড়াও আরো অনেক হাজার হাজার  অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় আছে। যেগুলোর যেকোনো একটা যদি আপনি ভালোভাবে করতে পারেন তাহলে অনেক ভালো অ্যামাউন্ট আয় করতে পারবেন।

সে রকম আরও অনলাইনে টাকা আয় করার জনপ্রিয় মাধ্যম গুলো হল ওয়েব ডিজাইন, সিপিএ মার্কেটিং, ডিজিটাল মার্কেটিং, ভিডিও এডিটিং ।

এরকম শত শত উপায় আছে অনলাইন থেকে আয় করার।

অফলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায় –

আসলে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার পাশাপাশি আপনি চাইলে অফলাইনেও অনেক উপায়ে টাকা আয় করতে পারেন। তবে অফলাইনে কাজ করলে আপনি সেটা ঘরে বসে করতে পারবেন না বাহিরে গিয়ে কাজগুলো করতে হবে। কিন্তু অনলাইনে কাজগুলো আপনি ঘরে বসেই যখন ইচ্ছা তখনই করতে পারবেন ।

যাইহোক অনলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায়গুলোর মধ্যে থেকে কিছু সহজ উপায় নিচে তুলে ধরা হলো-

১. ডেলিভারি ম্যান হিসেবে কাজ করা

টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় এর মধ্যে এটা আমার কাছে সেরা। ডেলিভারি ম্যান হিসেবে কাজ করা খুব বেশি কষ্টের না।

আপনি যদি পড়ালেখার পাশাপাশি অফলাইনে কোন জব করতে চান তাহলে এই কাজ থেকে বেছে নিতে পারেন । কারণ অনেক ছাত্র আছে যারা ডেলিভারি ম্যান হিসেবে কাজ করে অনেক টাকা আয় করছে।

এবং তারা সেই টাকা দিয়ে নিজের পড়াশুনার খরচ চালিয়ে নিচ্ছে ।

আরো পড়ুনঃ   বিকাশের নতুন চমক বিকাশ একাউন্ট করলে ৫০টাকা বোনাস এবং প্রতি রেফারে ১০০ টাকা বোনাস

যাইহোক ডেলিভারি ম্যান হিসেবে আপনি অনেক কোম্পানিতে কাজ করতে পারেন। তবে এগুলোর মধ্যে ফুডপান্ডা আমার কাছে অনেক ভালো মনে হয়।

আপনি চাইলে ফুডপাণ্ডার সাথে যোগাযোগ করে। আপনার প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট জমা দিয়ে তাদের ডেলিভারি ম্যান হিসেবে কাজ করতে পারেন।

এখানে আর একটা মজার ব্যাপার হচ্ছে আপনাকে এই জব অন্য কোনো এলাকাতে গিয়ে করতে হবে না। আপনি চাইলে শুধু আপনার এলাকাতেই ডেলিভারি ম্যান হিসেবে কাজ করে সেই অনুযায়ী সেলারি নিতে পারেন।

২. টিউশনি করিয়ে আয়

এখন চলে এসেছে আপনার বিদ্যাকে কাজে লাগিয়ে টাকা আয় করার উপায় । যদি আপনার একটু ভালো পড়াশোনা থাকে তাহলে এই কাজটা করার জন্য আপনার কাছে কোন কঠিন ব্যাপারই না।

আর যদি আপনি একজন ছাত্র হন তাহলে তো কোন কথাই নেই । নিশ্চিন্তে প্রাইভেট টিউশন করিয়া আয় করতে পারেন।

তবে এই কাজের জন্য অনেকেই ছাত্র খুঁজে পায়না। অর্থাৎ তারা পড়ানোর স্টুডেন্ট খুঁজে পায়না। তাদের জন্য একটা পরামর্শ সেটা হলো আপনারা বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপে জয়েন হয়ে থাকবেন। একগুলো গ্রুপ আছে যেগুলো প্রাইভেট টিউটরদের খোঁজার কাজে ব্যবহার করা হয়।

অর্থাৎ যদি আপনার প্রাইভেট পড়ানোর জন্য কোন টিচার বা স্টুডেন্ট প্রয়োজন হয় তাহলে আপনি সেই গ্রুপগুলোতে পোস্ট করতে পারবেন।

আবার অনেক ওয়েব সাইট আছে যেখানে আপনার অ্যাকাউন্ট খুলে রাখতে পারেন। যদি কখনো টিচার প্রয়োজন হয় তাহলে তারা আপনাকে ডেকে নেবে ।

এগুলো ছাড়াও  অফলাইনে টাকা আয় করার আরও অনেক শত শত উপায় আছে। যেমন আপনি চাইলে বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে কাজ করে টাকা আয় করতে পারে। আবার অফলাইনে বা অনলাইনে বিভিন্ন ব্যবসা করে টাকা আয় করতে পারেন।

আপনার যে কাজটা করতে ভালো লাগে আপনি টাকা আয় করার জন্য সেই কাজটাই সবসময় করবেন।

শেষ কথা:

ওপরে উল্লিখিত টাকা ইনকাম করার  উপায়গুলো যদি আপনার পছন্দ না হয় ।তাহলে  টাকা ইনকাম করার উপায় সম্পর্কে আরও অনেক পোস্ট আছে আমাদের ওয়েবসাইটে। সেগুলো পড়তে পারেন।

যাই হোক- সবাই ভাল থাকবেন আসসালামু আলাইকুম।

Our Official Website : bdpeak.com

Please Share This Article

Leave a Comment