Operator News

টেলিটক 4G করার নিয়ম যেভাবে টেলিটক সিম 4G করবেন

টেলিটক সিম 4G করবেন যেভাবে – টেলিটক সিম 4G করার উপায়!
বাংলেদেশে জিপি সিম, রবি সিম , এয়ারটেল সিম, বাংলালিংক সিম এবং টেলিটক সিম এই কয়েকটি অপারেটর সার্ভিস দিচ্ছে। এর মধ্যে সিম কোম্পানি অপেরেটর হচ্ছে টেলিটক। এই অপেরেটরে কম টাকায় ইন্টারনেট এবং অবিশ্বাস্য কম রেটে কলরেট পাওয়া যায়। একমাত্র রাস্ট্রায়ত্ব মালিকানাধীন অপারেটর হলো টেলিটক। অন্যান্য কোম্পানীর মত টেলিটক ও 4G সেবা চালু করেছে অনেক আগেই। অন্যান্য সিমে ৪জি তে মাইগ্রেট করতে হলে নিদিষ্ট পরিমান ফী দিতে হয় কিন্তু টেলিটকে ৩জি থেকে ৪জি তে যেতে কোন ফী লাগেনা।এবং কাস্টমার কেয়ারেও যাওয়া লাগে না।আপনি ইচ্ছা করলে বাসাই বসেই আপনার টেলিটক সিমটি 4 G করে নিতে পারেন।

টেলিটক সিম 4G করার নিয়ম

৪জি মানে কি?৪জি মানে হলো চতুর্থ প্রজন্মের ইন্টারনেট সেবা। ওয়্যারলেস তথ্যের ক্ষেত্রে অত্যন্ত দ্রুত গতির নেটওয়ার্ক এটি। ৩ জি-র তুলনায় উচ্চ ফ্রিকোয়েন্সির নেটওয়ার্ক ৪জি। যার মাধ্যমে দ্রুত গতিতে ইন্টারনেট ব্রাউজ করা যায়।আপনি ৩জি তে যে স্পিডে নেট চালাতেন তা থেকে আরো শক্তিশালি নেটওয়ার্ক ৪জি। তবে এই ফোরজি সেবাটি পেতে হলে বেশ কয়েকটি শর্ত পূরণ করতে হবে।

টেলিটক ৪জি করার শর্তাবলীগুলো নিচে দেয়া হলো।

3G থেকে 4G করুন আপনার টেলিটক সিম
১/ আপনি টেলিটক সিমটি যেই মোবাইলে ইউজ করবেন, সেই মোবাইলটি অবশ্যই 4G Supported হতে হবে। না হয় আপনার সিমটি ৪জি হবে না।

২/ আপনার টেলিটক সিমটি যদি খুব পুরুনো হয়।মানে হচ্ছে ২০১২ সালের আগের সিম হয় তাহলে অবশ্যই রিপ্লেস করতে হবে।বলতে পারেন ২০১২ সালের আগের সিম গুলো কাস্টমার কেয়ারে যেয়েই ৪জি করতে হবে।

৩/২০১২ সালের পর 2G অথবা 3G এবং বর্তমানের Teletalk Sim গুলো 3G, 3G হলে 3G থেকে 4G তে মাইগ্রেট করে নিতে পারবেন খুব সহজে।
৪/ আপনি অবশ্যই ৪জি কাভারেজ এরিয়ার মধ্যে থাকতে হবে না হয় ৪জি করলেও আপনি ৪জি ইন্টারনেট সেবা উপভোগ করতে পারবেন না।

আপনার টেলিটক সিমটি ৪জি চালু কিনা তা চেক করবেন কিভাবে?

টেলিটক সিম ৪জি কিনা তা চেক করতে আপনার মেসেজ অপশন  এ গিয়ে টাইপ করুন chk এবং পাঠিয়ে দিন 157 নাম্বারে। ফিরতি একটি মেসেজে আপনাকে জানিয়ে দেওয়া হবে আপনার সিমটি ৪জি কি না।

Teletalk Sim 3G থেকে 4G তে মাইগ্রেট করবেন যেভাবে

টেলিটক সিমটি মাইগ্রেট করতে আপনার মোবাইলের এর মেসেজ অপশন এ যান। মেসেজ অপশন৷ যেয়ে টাইপ করুন 4G তারপর পাঠিয়ে দিন 111 নাম্বার এ। কোনো চার্জ কাটবে না। আপনার টেলিটক সিমটি ফ্রীতেই আপনার সিমটি ৪জি তে রূপান্তরিত হবে।

টেলিটক ৪জি এর স্পিড কেমন?

বর্তমানে ঢাকা সিটির মধ্যে এবং ঢাকা সিটির বাইরে বেশ অনেক গুলো এলাকায় টেলিটক এর ৪জি সেবাটি চালু আছে। আপনার এলাকায় ৪জি চালু আছে কি না আপনারা টেলিটক কাস্টমার কেয়ারে কল করে যেনে নিতে পারেন। টেলিটক কাস্টমার কেয়ার নাম্বার ০১৫৫০-১৫৭৭৫০, টেলিটক ৪জি তে বেশ ভালই স্পীড পাওয়া যায়। টেলিটক কর্মকর্তাদের দাবি, এই নেটওয়ার্কেই গ্রাহকরা পাবেন সেরা গতির ইন্টারনেট। টেলিটক ফোর-জি’র ডাউনলোড স্পিড থাকবে ৪০ এমবিপিএস ও আপলোড স্পিড থাকবে ১৫ এমবিপিএস।তো বুজতেই পারছেন যাদের এরিয়ায় টেলিটক 4G নেটওয়ার্ক পাওয়া যাবে তারা খুব ভালো স্পিডে টেলিটক ৪জি চালাতে পারবেন।

পোস্টটি ভাল লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে এবং ফেসবুকে শেয়ার করুন। আপনি কোন অফারটি নিতে চান কমেন্ট করে আমাদের জানিয়ে দিন।

Shakil Ahamed

চেষ্টা করলে সফল অবশ্যই হওয়া যায়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button