শেষমেষ ফ্রি ফায়ার ও পাবজি গেম নিষিদ্ধ হচ্ছে বাংলাদেশে।

শেষমেষ ফ্রি ফায়ার ও পাবজি গেম নিষিদ্ধ হচ্ছে বাংলাদেশে।কথাটি শুনে অবাক হওয়ার কিছু নেই।আমি নিজেও অবাক হয়েছিলাম।কিন্তু কিছু করার নাই। তবে জানা যায় যে, শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বিষয়টি নিয়ে সুপারিশ করা হয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে। ফ্রি ফায়ার পাবজি নিষিদ্ধ করার জন্য বাংলাদেশে।

কবে থেকে দেশে নিষিদ্ধ হচ্ছে ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম

হঠাৎ করে ফ্রি ফায়ার ও পাবজি গেম বন্ধ করতে গেলে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হতে পারে। তাই আস্তে আস্তে বিকল্প পদ্ধতি অবল্মবন করে ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম দুটি বন্ধের উদ্যোগ নেয়া হবে এমনটাই শুনা যাচ্ছে। যাদের ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম ছাড়া চলে না।অথাবা ফ্রি ফায়ার ও পাবজি গেমে আসক্ত তারা ভিপিএনসহ নানা উপায় অবোলম্ভন করে ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম খেলতে পারে। সেগুলোও বন্ধে পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানা যায়।

কেন ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম নিষিদ্ধ হচ্ছে বাংলাদেশে

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ওই দুটি গেম কিশোর-কিশোরী ও তরুণদের মধ্যে আসক্তি তৈরি করেছে।সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ জানান যে, গত ২১শে মে চাঁদপুরে মামুন (১৪) নামে এক তরুণ মোবাইলের ডাটা কেনার টাকা না পেয়ে মায়ের সঙ্গে অভিমান করে আত্মহত্যা করে। তাছাড়া গেম দুটি খেলার ফলে বিপুল পরিমাণ অর্থ দেশের বাইরে চলে যাচ্ছে বলেও জানা গেছে।বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে শিক্ষা ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সুপারিশ করেছেন বাংলাদেশে ফ্রি ফায়ার পাবজি বন্ধ করার জন্য। তাই বন্ধ ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম নিষিদ্ধ হচ্ছে বাংলাদেশে।

IMG 20210529 163649

কিভাবে তুরুণ তরুণীরা ফ্রি ফায়ার পাবজি গেমে আসক্ত হচ্ছে

গত বুধবার এক বিবৃতিতে সংগঠনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ জানান যে, করোনা মহামারিতে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকার ফলে অনলাইনভিত্তিক ক্লাসের জন্য অভিভাবকরা সন্তানদের হাতে ল্যাপটপ অথবা মোবাইল ডিভাইস তুলে দিতে বাধ্য হচ্ছেন। আর সেই সুযোগে তরুণ প্রজন্ম ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম দুটির প্রতি আসক্ত হয়ে পড়ছে।আর সবাই ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম খেলা করে বলেই সবাই এ ফ্রি ফায়ার পাবজি গেমে আসক্ত হয়ে পরছে।

কিভাবে বিকল্প উপায় ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম খেলবো?

আমরা যাদের ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম ছাড়া চলে না।অথাবা ফ্রি ফায়ার ও পাবজি গেমে আসক্ত তারা ভিপিএনসহ নানা উপায় অবোলম্ভন করে ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম খেলতে পারে। সেগুলোও বন্ধে পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানা যায়। তাই বলা যায়যে, আমাদের বাংলাদেশ থেকে পুরোপুরি দেশে নিষিদ্ধ হচ্ছে ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম। খেলার কোনো বিকল্প উপায় আছে বলে মনে হচ্ছে না। তবে পুরোপুরি ভাবে দেশে নিষিদ্ধ হওয়ার ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম পর বুঝা যাবে।

ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম নিয়ে কিছু কথা

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে বন্দুক দিয়ে মসজিদে মুসলমানদের হত্যা এবং সেই দৃশ্য ফেসবুক লাইভের বিষয়টি অনেকেই পাবজির সঙ্গে তুলনা করেন। ফ্রি ফায়ার পাবজি গেম নিষিদ্ধ শুধু বাংলাদেশে নয়। সম্প্রতি নেপালে পাবজি নিষিদ্ধ করে দেশটির আদালত। কারণ কারণে ভারতের গুজরাটেও এ গেম খেলার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছিল।

Sharing Is Caring:

Leave a Comment