Wednesday, October 5, 2022

কাতার ফিফা বিশ্বকাপ ২০২২ এ কোন দল কার সাথে খেলবে। দেখে নিন সকল গ্রুপ গুলো.!!

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সকলে অনেক ভালো আছেন। আপনাদের কে আমাদের এই সাইটে আমার পক্ষ থেকে জানাই স্বাগতম। আজকের পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে ফিফা কাতার বিশ্বকাপ ২০২২ এ কোন দল কোন গ্রুপে এই বিষয় টি নিয়ে কথা বলবো। তো চলুন দেরি না করে পোস্ট টি শুরু করে দেওয়া যাক।

 

গত শুক্রবার, অর্থাৎ আগামীকাল কে চুরান্ত ভাবে ড্র করা হয় কোন দল কোন গ্রুপে খেলবে এই বিষয় টি নিয়ে। এর পর সকল জল্পনা – কল্পনার পরে জানা যায় কোন দল কোন গ্রুপে এবং কোন দলের সাথে কোন দলের খেলা পড়বে এই বিষয় টি। এই বিষয় নিয়ে এখনো অনেকেই জানেন না, তো আপনাদের সুবিধার্তে এই পোস্ট টি করা।

এই পোস্ট পড়লে বুঝতে পারবেন কোন দল কোন গ্রুপে পড়েছে, এবং কার সাথে কার খেলা হবে। নিম্নে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

কাতার বিশ্বকাপ ২০২২

গত শুক্রবারের কাতার বিশ্বকাপ ২০২২ এর ড্র সকল ধরণের জল্পনা এবং গ্রুপ অফ ডেথের দুঃস্বপ্নের পরিস্থিতির অবসান ঘটিয়েছে, তবে এখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এর জাতীয় দল সবচেয়ে শক্তিশালী গ্রুপে পড়েছে বলে মনে হচ্ছে। তবে খেলার সময়ই দেখা যাবে কে শক্তিশালী আর কে দূর্বল।

কেননা শুধু লটারি করেই কোনো দলকে ফিফা ২০২২ বিশ্বকাপ এর মতো এত বড় মঞ্চে খেলার সুযোগ দেওয়া হয়নি। সকলেই সকলের যোগ্যতার মাধ্যমে সুযোগ পেয়েছে। যদিও কাতার স্বাগতিক দল হওয়ায় কোনো প্রকার প্রতিযোগিতা ছাড়াই খেলতে পাড়ছে। তবুও তাদের যথেষ্ট যোগ্যতা আছে বিশ্বকাপ খেলার।

তাছাড়া ২০১৯ সালে এসিয়া এর দুই ছোট দল মাঙ্গোলিয়া ও দারুসসালাম নামক দুই দেশের লড়াই এর মাধ্যমে শুরু হয় এই কাতার বিশ্বকাপ এর বাছাই পর্ব। এই ৩ টি বছর প্রায় হাজারো ম্যাচ খেলা হয়েছে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের জন্য। এর মধ্য থেকে মোট ৩২ টি দলের মধ্য ২৯ টি দল খেলার সুযোগ পেয়েছে এবং বাকি ৩ টি দল এখনো অনির্ধারিত। যা আশা করা যায় খুব শিঘ্রই জানা যাবে।

চূড়ান্ত সময়ের জন্য, চারটি দল নিয়ে গঠিত আটটি গ্রুপ ড্র হয়েছিল শুক্রবারে। ৩২ টি দলের মধ্যে ২৯ টি বর্তমানে চুরান্ত প্লে অফ এ খেলার চাঞ্চ পেয়েছে। কিন্তু বাকি তিনটি প্লে অফ ম্যাচে কারা চাঞ্চ পাবে তার জন্য আরো কিছু সময় অপেক্ষা করতে হবে আমাদের।

কাতার বিশ্বকাপ ২০২২, ২১ শে নভেম্বর শুরু হবে এবং ১৮ই ডিসেম্বর এ ফাইনালের মাধ্যমে শেষ হবে। কোন দল কোন গ্রুপে খেলবে তা নিচে জানানো হলো।

Group – A

১. কাতার
২. ইকুয়েডর
৩. সেনেগাল
৪. নেদারল্যান্ডস

সেনেগাল এবং নেদারল্যান্ডস সম্ভবত এই গ্রুপ থেকে অগ্রসর হওয়ার জন্য ফেভারিট হবে, তবে ইকুয়েডরের সাথে বিশৃঙ্খলার একটি উচ্চ সম্ভাবনা রয়েছে এবং স্বদেশী দেশটিও তাদের সুযোগ পছন্দ করে অন্য যেখানে তারা অবতরণ করতে পারে তার তুলনায়।

Group – B

১. ইংল্যান্ড
২. ইরান
৩. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
৪. ইউরোপীয় প্লে অফ (ওয়েলস বনাম ইউক্রেন/স্কটল্যান্ড)

এখানে ৪ নং এ কোন দল খেলবে এটা নিয়ে রয়েছে অনেক জল্পনা। এই স্থানে মোট ৩ টি দল ওয়েলস, ইউক্রেন অথবা স্কটল্যান্ড চাঞ্চ পেতে পারে। এটি খুব তাড়াতাড়িই আমরা জানতে পারতাম। কিন্তু বর্তমানে রাশিয়া এবং ইউক্রেন এর যুদ্ধের কারণে পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে এই খেলার সময় টি।

এখান থেকে ইউক্রেন বনাম স্কটল্যান্ড এর থেকে যে জিতবে সে খেলবে ওয়েলস এর সাথে। আর ওয়েলস এর সাথে খেলার পর যে জিতবে সে খেলবে গ্রুপ – বি এর ৪নং স্থানে।

Group – C

১. আর্জেন্টিনা
২. সৌদি আরব
৩. মেক্সিকো
৪. পোল্যান্ড

Group – D

১. ফ্রান্স
২. ইন্টার – কন্টিনেন্টাল প্লে অফ – ১ (পেরু বনাম UAE অথবা অস্ট্রেলিয়া)
৩. তিউনিসিয়া
৪. ডেনমার্ক

এই গ্রুপে ২ নং এ কোন দল খেলবে তা এখনো নিশ্চিত ভাবে বলা যাচ্ছে না। এখানে আরব আমিরাত বনাম অস্ট্রেলিয়া এর মধ্য খেলা হবে, যে জিতবে সে খেলবে পেরুর সাথে। আর সেখান থেকে যে জিতবে সে খেলবে গ্রুপ – ডি এর ২ নং এ।

Group – E

১. স্পেন
২. ইন্টার – কন্টিনেন্টাল প্লে অফ – ২(কোস্টারিকা বনাম নিউজিল্যান্ড)
৩.জার্মানি
৪. জাপান

এই গ্রুপের ২ নং দল হিসেবে কে খেলবে এটা নিয়ে খুব বেশি একটা ঝামেলা নেই। কোস্টারিকা বনাম নিউজিল্যান্ড এর একটি ম্যাচ হবে। যে জিতবে সে খেলবে এই গ্রুপের ২ নং টিম হিসেবে।

Group – F

১. বেলজিয়াম
২. কানাডা
৩. মরক্কো
৪. ক্রোয়েশিয়া

Group – G

১. ব্রাজিল
২. সার্বিয়া
৩. সুইজারল্যান্ড
৪. ক্যামেরুন

Group – H

১. পর্তুগাল
২. ঘানা
৩. উরুগুয়ে
৪. দক্ষিণ কোরিয়া

এগুলোই ছিলো কাতার বিশ্বকাপ ২০২২ এর সকল দলের গ্রুপ। ইউরো চ্যাম্পিয়ন ইটালি হওয়া সত্ত্বেও পর পর দুই বছর চাঞ্চ পেলো না ইটালি কাতার বিশ্বকাপ ২০২২ খেলার। তবে সামনে অবশ্য একটি সুযোগ আছে। যেটা কাজ করবে কি করবে না সেটা বলা মুশকিল।

ইরার সরাসরি বিশ্বকাপের টিকিট পেয়ে গেছে। তবে ইরান এর একটি সমস্যার জন্য ইরান ফিফা বিশ্বকাপ থেকে বাদ হয়ে যেতে পারে। আর যদি তা হয় তাহলে ইটালি চাঞ্চ পাবে ইরানের যায়গায় খেলার। কারণ বাছাই পর্বে ইরানের পরেই ছিলো ইটালি।

তো ইরানের সমস্যা টি হলো, তারা চায় না তাদের দেশের নারী দর্শক স্টেডিয়ামে গিয়ে খেলা দেখুক। এর কারণে ফিফা আগেই ইরানকে সতর্ক করেছিলো। ফলে এক প্রকার বাধ্য হয়েই তারা ২০১৯ সালে এই জিনিস টি তুলে নেয়। কিন্তু তারা আবারো এই নিয়ম চালু করছে। এর ফলে ফিফা কিছুটা হলেও ক্ষিপ্ত। এর জন্য ফিফা থেকে বাদ হয়ে যেতে পারে ইরান। আর এমন হলে তাদের যায়গায় কপাল খুলবে ইটালির।

তবে এই বিষয় নিয়ে ফিফা বা অন্য কোনো দেশে কিছু জানা যায় নাই। এটি ইটালির একটি সংবাদ থেকে জানা যায়।

 

তো বন্ধুরা আশা করি পোস্ট টি আপনাদের কাছে ভালো লেগেছে। ভালো লেগে থাকলে কিন্তু অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আর এরকম পোস্ট পেতে প্রতিদিন ভিজিট করতে থাকুন আমাদের এই সাইট টি। আবার দেখা হবে পরবর্তী কোনো পোস্ট এ। সে পর্যন্ত সকলে ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন। আল্লাহ হাফেয।

Shihab
Shihabhttps://skytube.ml
নিজে যা জানি তা অন্যকে জানাতে ভালোবাসি আর্টিকেলের মাধ্যমে। বিভিন্ন ওয়েব সাইটে লেখালেখি করি.
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here