Apps Review

এন্ড্রয়েড ফোনের সেরা ৭ টি বাংলা কিবোর্ড

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সকলে অনেক ভালো আছেন। আপনাদের সবাইকে আমাদের ওয়েবসাইট এ স্বাগতম। আজকের পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে এন্ড্রয়েড ফোনের সেরা ৭ টি কিবোর্ড এপ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো। তো চলুন বন্ধুরা শুরু করা যাক।

ইন্টারনেটে আমরা সবাই কমবেশি বাংলায় লেখালেখি করে থাকি। হোক সেটা লোকজনের সাথে যোগাযোগের জন্য কিংবা বাংলায় কোনো কিছু গুগলে সার্চ করার জন্য- আমাদের মোবাইলে বাংলা টাইপিং এর অ্যাপ প্রয়োজন হয়ই। আপনি চাইলে ফোনেটিক পদ্ধতিতে অর্থাৎ কীবোর্ডের মধ্যে ইংরেজি বর্ণে লিখে স্ক্রিনে তা অটোমেটিক বাংলা অক্ষরে পেতে পারেন। অথবা বাংলা কিবোর্ড সফটওয়্যার এ সরাসরি বাংলা অক্ষরে লিখতে পারেন। আপনার যে পদ্ধতি ভালো লাগে সেটাই পেতে পারেন বাংলা কিবোর্ড অ্যাপে।

আজকে আপনাদেরকে জানো এমন ৭টি মোবাইল বাংলা কিবোর্ড অ্যাপ সম্পর্কে, যেগুলো ব্যবহার করে খুব সহজেই বাংলা টাইপ করতে পারবেন আপনার স্মার্টফোন থেকেই। এদের মধ্যে কিছু কিছু কিবোর্ডে রয়েছে ভয়েস টাইপিং এর মত দারুণ কিছু সুবিধা। কিছু কিছু কিবোর্ড এন্ড্রয়েড এবং আইফোন উভয়ের জন্য পাওয়া যাবে। কিছু আবার শুধু মাত্র এন্ড্রয়েডের জন্য পাবেন। আর আপনি যদি কম্পিউটারে বাংলা লেখার সফটওয়্যার খোঁজেন তাহলে এই পোস্টের শেষে দেখুন। চলুন শুরু করি।

জিবোর্ড বাংলা কিবোর্ড

আমাদের তালিকার শীর্ষে স্থান পেয়েছে গুগলের তৈরী কিবোর্ড এ্যাপ, জিবোর্ড বা গুগল কিবোর্ড। জিবোর্ড এতটাই ফিচার সমৃদ্ধ যে, সব ফিচার হয়ত আপনার ব্যবহার করাই হয়ে উঠবেনা। জিবোর্ড অ্যাপটিতে রয়েছে একাধিক ধরনের টাইপিং সুবিধা – গ্লাইড টাইপিং, ভয়েস টাইপিং এমনকি হ্যান্ডরাইটিং বেসড টাইপিং। এছাড়াও কিবোর্ড এ ইন-বিল্ট রয়েছে গুগল ট্রান্সলেট এর সুবিধা।

সার্চ এর মাধ্যমে খুব সহজে কাঙ্ক্ষিত ইমোজি খুজে পাওয়া যাবে এই কিবোর্ডে। আরো রয়েছে বিভিন্ন ধরনের জেশ্চার সুবিধা, ওয়ান হ্যান্ডেড মোড, থিমস, ইত্যাদি।

অসংখ্য স্টিকার সম্বলিত স্টিকার লাইব্রেরির পাশাপাশি জিবোর্ডে থাকছে এনিমেটেড ছবি অর্থাৎ গিফ লাইব্রেরি। বাংলার পাশাপাশি বিশ্বের উল্লেখ্যযোগ্য সকল ভাষায় টাইপ করা যাবে জিবোর্ড এ্যাপটি ব্যবহার করে। অ্যাপটি এন্ড্রয়েড এবং আইফোন (আইওএস) – উভয় প্ল্যাটফর্মেই পাওয়া যাবে।

গুগল ইন্ডিক বাংলা কিবোর্ড

ইংরেজিসহ ভারতীয় উপমহাদেশের অঞ্চলভিত্তিক ১১টি ভাষা নিয়ে নির্মিত গুগল ইন্ডিক কিবোর্ড অ্যাপটি অবস্থান করছে আমাদের তালিকার দ্বিতীয় স্থানে। অ্যাপটিতে থাকছে ইংরেজি থেকে বাংলায় ফনেটিক স্টাইলে টাইপিং এর সুবিধা। এছাড়াও বাংলা বর্ণের মাধ্যমে সরাসরি লেখার সুবিধা তো থাকছেই।

সেই সাথে কিবোর্ড এর মধ্যেই ট্রান্সলেশন, ইমোজি ইত্যাদি ফিচার ও রয়েছে। আপনি যদি জিবোর্ড ব্যবহার করেন তাহলে গুগল ইন্ডিক কিবোর্ড আপনার দরকার নেই বলা চলে। তবে এটা অবশ্যই ট্রাই করে দেখতে পারেন, যদি বেশি ভালো লেগে যায় আরকি।

রিদ্মিক বাংলা কিবোর্ড

মোবাইল ডিভাইসে বাংলা ফোনেটিক টাইপিংকে জনপ্রিয় করার পেছনে যে অ্যাপটি রয়েছে সেটি আমাদের তালিকায় স্থান পাবেনা, তা কী করে হয়! কথা বলছি সবার পছন্দের রিদমিক কিবোর্ড অ্যাপটি নিয়ে। ১ কোটিরও অধিক ডাউনলোড সংখ্যা এবং ৪.৫ রেটিং নিয়ে সগৌরবে নিজের জনপ্রিয়তা এবং সুনামের কথা জানান দিচ্ছে রিদ্মিক কিবোর্ড অ্যাপটি।

ফোনেটিক বাংলা টাইপিং সুবিধার পাশাপাশি ন্যাশনাল এবং প্রভাত টাইপিং লে-আউটও রয়েছে ঋদ্মিক কিবোর্ড অ্যাপে।

এতে থাকছে অনেক রকম থিম থেকে নিজের পছন্দেরটি বেছে নেওয়ার সুবিধা। পাশাপাশি কিবোর্ড থিম কাস্টমাইজেশনের সুবিধাও রয়েছে। ভয়েস টাইপিং সুবিধাও পাওয়া যাবে এ্যাপটিতে। প্রায় সব ধরনের ইমোজি যুক্ত করা হয়েছে এপটিতে। রিদমিক কিবোর্ড অ্যাপ এন্ড্রয়েড এবং আইওস – উভয় প্ল্যাটফর্মেই পাওয়া যাবে।

বাংলা কিবোর্ড ২০২১

তালিকার চতুর্থ স্থান দখল করেছে বাংলা কিবোর্ড ২০২১ নামের একটি এ্যাপ। সাধারণ বাংলা টাইপিং এর পাশাপাশি ফনেটিক টাইপিং এর সুবিধা থাকছে এ্যাপটিতে। এতে ভয়েস টাইপিং সুবিধাও বিদ্যমান। অসংখ্য ইমোজির পাশাপাশি থাকছে কিবোর্ড থিম কাস্টমাইজেশনের সুবিধা। তবে এই অ্যাপে বিজ্ঞাপন দেখা যাবে। উপরে উল্লিখিত অন্য অ্যাপগুলোতে কোনো বিজ্ঞাপন দেখানো হয়না।

স্বরচক্র কিবোর্ড

স্বরচক্র কিবোর্ড এ্যাপটি তালিকার অন্যান্য কিবোর্ড অ্যাপ থেকে অনেকটাই ব্যতিক্রমধর্মী। তালিকার অন্যান্য কিবোর্ড এপগুলোতে আমরা ফনেটিক টাইপিং, ভয়েস টাইপিং, কিংবা সরাসরি প্রভাত লে-আউট টাইপিং দেখেছি। তবে স্বরচক্র কিবোর্ড এসব কোনোটির মতই নয়।

স্বরচক্র কিবোর্ডে প্রত্যেকটি অক্ষরের সাথে একটি একটি চক্রের ন্যায় লে-আউট যুক্ত রয়েছে, যা অক্ষরের উপর কিছুক্ষণ ধরে প্রেস করলে দৃশ্যমান হয়।

প্রথমবার ব্যবহারে এ্যাপটিকে কঠিন মনে হলেও সময়ের সাথে সাথে এটি অনেকটাই সহজ হয়ে যায়। এছাড়াও স্বরচক্র বাংলা কিবোর্ড অ্যাপটির যথাযোগ্য ব্যবহারের মাধ্যমে বাংলা টাইপিং করার দরকারি সময়ও সাশ্র‍য় হয়। উল্লেখ্য যে, স্বরচক্র বাংলা কিবোর্ড এ্যাপটিতে কোনো ধরনের ইমোজি নেই।

বাংলা কিবোর্ড

২৩ হাজারের অধিক ৪.৫ স্টার রেটিং নিয়ে আমাদের তালিকায় রয়েছে বাংলা লেখার একটি কিবোর্ড অ্যাপ, “বাংলা কিবোর্ড” ই যার নাম। ভারতে তৈরী এই অ্যাপটি দিয়ে খুব সহজেই বাংলা লেখা যায় মোবাইল ফোনে।

বাংলা কিবোর্ড অ্যাপটিতে রয়েছে ভয়েস ব্যবহার করে বাংলা টাইপিং এর সুবিধা। এছাড়াও রয়েছে বিভিন্ন বাংলা স্টিকার। বাংলা কিবোর্ড অ্যাপটিতে ইমোজি সাপোর্ট তো থাকছেই। থাকছে থিম চেঞ্জ করে নিজের মতো কাস্টমাইজ করে নেওয়ার সুবিধা।

বিজয় বাংলা কিবোর্ড

অধিকাংশ মানুষের কম্পিউটারে বাংলা লেখার হাতেখড়ি বিজয় বাংলা কিবোর্ড এর হাত ধরেই। অবশেষে চলে এলো বিজয় বাংলা কিবোর্ড এর এন্ড্রয়েড ভার্সন। মাত্র ৪২৪ কেবির অ্যাপটি দিয়ে খুব স্বতঃস্ফূর্তভাবে লেখা যাবে প্রাণের ভাষা বাংলা। গুগল প্লে-স্টোরে ১লক্ষেরও অধিকবার ডাউনলোড হয়েছে অ্যাপটি। বিজয় বাংলা কিবোর্ড অ্যাপটি শুধুমাত্র এন্ড্রয়েড ফোনে ব্যবহার যাবে।

তো বন্ধুরা আপনি কোন কিবোর্ড ব্যবহার করেন সেটি কিন্তু আমাদের কমেন্ট করে জানাতে ভূলবেন না। আর আমাদের এই পোস্ট ভালো লাগলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

Shihab

নিজে যা জানি তা অন্যকে জানাতে ভালোবাসি আর্টিকেলের মাধ্যমে। বিভিন্ন ওয়েব সাইটে লেখালেখি করি.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button