আসরের নামাজের নিয়ত আরবি উচ্চারণ, বাংলা উচ্চারণ এবং বাংলা অর্থ সহ

আসরের নামাজের নিয়ত আরবি উচ্চারণ, বাংলা উচ্চারণ এবং বাংলা অর্থ সহঃ আসসালামু আলাইকুম, প্রিয় ভাই ও বোনেরা আল্লাহর অশেষ দয়ায় আশা করি ভালো আছেন। আমিও আল্লাহর অশেষ মায়ায় ভালো আছি। আজকে আপনাদের জন্য ইসলামিক পোস্ট নিয়ে হাজির হলাম। আজকে আপনাদের জন্য নিয়ে আসলাম আসরের নামাজ আদায়ের নিয়ম সহ সব কিছু নিয়ে আলোচনা করবো।

একজন মুসলিম হিসেবে নামাজ আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং অপরিহার্য। আসরের নামাজ দিনের তৃতীয় নামাজ। আজকে আমরা এই আসরের নামাজ নিয়ে আলোচনা করবো। এই পোস্টে আপনি আসরের নামাজের নিয়ম, আসরের নামাজ পড়ার নিয়ম, আসরের নামাজ কত রাকাত ও কি কি , আসরের নামাজের নিয়ত, আসরের নামাজের সময় , আসরের নামাজের শেষে দুয়া এসব জানতে পারবেন।

আপনি আসরের নামাজের নিয়ত, আসরের নামাজের সময় , আসরের নামাজের নিয়ম, আসরের নামাজ পড়ার নিয়ম, আসরের নামাজের নিয়ম, আসরের নামাজ আদায়ের নিয়ম ইত্যাদি জানার জন্য আমাদের ShopTips24.Com ওয়েবসাইটে আসছেন? তো দেরি না করে চলুন আমরা সম্পূর্ন আর্টিকেলটি দেখি।আসরের নামাজ আদায়ের নিয়ম সহ সব কিছু নিয়ে আলোচনা করবো।

আসর নামাজ ও নিয়ত

আসর নামাজের নিয়ম ও নিয়ত এবং কিভাবে নিয়ত বাধতে হয় এ সম্পর্কে আজকে আরটিকেলে তাই সাজানো হয়েছে সুতরাং সম্পূর্ণ দেখুন কোথাও কোন ভুল ত্রুটি হলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন এবং কমেন্ট বক্সে অবশ্যই জানাবেন।

আসরের নামাজের নিয়ত আরবি উচ্চারণ, বাংলা উচ্চারণ এবং বাংলা অর্থ সহ

আসর নামাজ কত রাকাত ও কি কি?

আসর নামাজ ৮ রাকাত। যথাঃ

  • চার-রাকাত সুন্নত।
  • চার-রাকাত ফরজ।

আসরের চার-রাকাত সুন্নত নামাজের নিয়ত সমূহ

আসরের চার-রাকাত সুন্নত নামাজের নিয়ত আরবি-উচ্চারন, বাংলা-উচ্চারন এবং বাংলা অর্থ সহ নিচে দেওয়া হলোঃ

আরবি-উচ্চারন:

نَوَيْتُ اَنْ اُصَلِّىَ لِلَّهِ تَعَا لَى اَرْبَعَ رَكْعَتِ صَلَوةِ الْعَصْرِسُنَّةُ رَسُوْلِ للَّهِ تَعَا لَى مُتَوَجِّهًا اِلَى جِهَةِ الْكَعْبَةِ الشَّرِ يْفَةِ اَللَّهُ اَكْبَرُ

বাংলা-উচ্চারন:

নাওয়াইতুয়ান উসালিয়া-লিল্লাহি তা’আলা আরবায়া রাকাআতি ছালাতিল আসরি সুন্নাতু রাসূলিল্লাহি তা’য়াল মোতাওয়াজ্জিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারিফাতি আকবর।

বাংলা অর্থ:

আছরের চার রাকাত সুন্নত নামাজ আদায় করার উদ্দেশ্যে কিবলামুখী হয়ে নিয়্যত করলাম,আল্লাহু আকবার।

আসরের চার-রাকাত ফরজ নামাজের নিয়ত সমূহ

আসরের চার-রাকাত ফরজ নামাজের নিয়ত আরবি-উচ্চারন, বাংলা-উচ্চারন এবং বাংলা অর্থ সহ নিচে দেওয়া হলোঃ

আরবি-উচ্চারন:

نَوَيْتُ اَنْ اُصَلِّىَ لِلَّهِ تَعَا لَى اَرْبَعَ رَكْعَتِ صَلَوةِ الْعَصْرِ فَرْضُ اللَّهِ تَعَا لَى مُتَوَجِّهًا اِلَى جِهَةِ الْكَعْبَةِ الشَّرِ يْفَةِ اَللَّهُ اَكْبَرُ

বাংলা-উচ্চারন:

নাওয়াইতুয়ান উসালিয়া-লিল্লাহি তা’আলা আরবায়া রাকাআতি ছালাতিল আসরি ফারদুল্লাহি তা’য়াল মোতাওয়াজ্জিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারিফাতি আকবর।

বিঃদ্রঃ-ঈমামের পিছনে পড়লে ফারদীল্লা-হি তাআ’লা বলার পরে ইকতাদাইতু বিহা-যাল ইমাম বলবে।

বাংলা অর্থ:

আছরের চার রাকাত ফরজ নামাজ আদায় করার উদ্দেশ্যে কিবলামুখী হয়ে নিয়্যত করলাম,আল্লাহু আকবার।

আছর নামাজের তাসবিহ:

  • উচ্চারণঃ হুয়ার রাহমা-নুর রাহীম।
  • অর্থঃ তিনি কৃপাময় ও করুনা নিধান।

বিঃদ্রঃ-আসর নামাজের শেষে ১০০ বার পাঠ করার তাসাবীহ্‌।

আছর নামাজের সময়-সূচী:

আছরঃ–আসর নামাজের পর অর্থাৎ মধ্যাহ্ন পেরিয়ে সূর্য যখন পশ্চিম দিগন্ত রেখা থেকে বেশ কিছুটা উপরে অবস্থান করে এবং সূর্যের উজ্জ্বলতা তেজ বিরাজমান থাকে,সেই সময় থেকে সূর্যের সোনালী তামাটে বর্ণ মিটে গিয়ে রক্তিম বর্ণ ধারণ করার পূর্বেই নামাজ আদায় করে নেয়া ভাল। সে সময় সূর্য দিগন্ত রেখা থেকে এতটা উপরে থাকা উচিত যে,জানালা গলে ঘরের মাঝে ছড়িয়ে পড়া সূর্যকিরণ মিটে গিয়ে যেন ছায়া ঘনিয়ে না আসে। তবে ক্ষেত্র বিশেষে প্রয়োজনে সূর্যের অস্তগামী প্রথম অংশ দিগন্তরেখা অতিক্রম করার আগ মূহুর্ত পর্যন্ত নামাজ আদায় করে নেয়া যেতে পারে। সূর্যাস্তের সময় নামাজ পড়া নিষেধ।

আমাদের শেষ কথা

আমরা আসর নামাজের নিয়ত ও সময়সূচি নিয়ে আলোচনা করেছি সেই সাথে কিভাবে আসর নামাজ পড়বেন। আসর নামাজ পরার নিয়ম নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে আজকের আরটিকেলে। মানুষ মাত্রই ভুল। আমাদেরও ভুল হতে পারে আজকের আর্টিকেলে যদি কোথাও কোন ভুল হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে ভুলটি সুধরিয়ে দেওয়ার অনুরোধ রইল।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top