Friday, September 30, 2022

চুল পড়া কমাতে যে খাবার গুলো প্রতিদিনের পাতে রাখবেন

হ্যালো বন্ধুরা, আশা করি আপনারা সবাই ভালো আছেন। আমার পক্ষ থেকে আমাদের সাইটে স্বাগতম. আজকের পোস্টে আমি আপনাদের সাথে চুল পড়া কমায় এমন খাবারের কথা বলব। তো চলুন দেরি না করে পোস্ট শুরু করি।

চুল পড়া কমাতে সাহায্য করবে এমন খাবার

আপনি যেখানেই যান না কেন, মনে হচ্ছে আপনি আপনার চিহ্ন রেখে যাচ্ছেন! তার মানে আপনার চুল সব জায়গায়! যতবার চুলে হাত দিচ্ছেন ততবারই হাতে অনেক চুল উঠে আসছে! আপনি কি এমন পরিস্থিতির সম্মুখীন হচ্ছেন? চুল পড়া কমাতে স্বাস্থ্যকর খাবারের অভ্যাস সহ

বেসিক চুলের যত্নের রুটিন বজায় রাখতে হবে। প্রাকৃতিক চুল পড়ার হার কমাতে অ্যান্টি হেয়ার ফল মাস্ক খুবই কার্যকরী। শুধু হেয়ার প্যাকই চুলে পুষ্টি যোগায় তা নয়। আপনি কি খান তার উপরও আপনার চুলের সৌন্দর্য নির্ভর করে। চুলকে মজবুত ও ঝলমলে করতে ভিটামিন ও অন্যান্য পুষ্টিসমৃদ্ধ কিছু খাবার নিয়মিত খেতে পারেন।

চুল পড়া কমায় এমন খাবার খাওয়া

নীচে এমন কিছু খাবারের তালিকা দেওয়া হল যা আমাদের চুল পড়া কমাতে পারে।

ডিম

ডিমে প্রোটিন থাকে। প্রোটিন দ্রুত চুল বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এছাড়াও ডিমে থাকা খনিজ ও ভিটামিন চুলের ফলিকলকে মজবুত করে।

পালং শাক

পালং শাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রয়েছে। এছাড়াও এই সবজি থেকে বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন পাওয়া যায়। নিয়মিত পালং শাক খেলে চুল সুস্থ থাকে।

পিনাট বাটার

চিনাবাদাম মাখন প্রোটিনের একটি চমৎকার উৎস। এছাড়া এতে থাকা বায়োটিন ও ভিটামিন ই চুলকে প্রাকৃতিকভাবে সুন্দর ও ঝলমলে রাখে।

মিষ্টি আলু

মিষ্টি আলুতে ভিটামিন এ এবং বিটা ক্যারোটিন পাওয়া যায়। এই উপাদানগুলো চুলের বৃদ্ধি বাড়ায়।

লেবু

লেবুতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। এতে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড চুলের যত্নেও অনন্য।

শুকনো ফল

আপনি প্রতিদিন বিভিন্ন ধরনের শুকনো ফল খেতে পারেন। শুকনো ফলের ফ্যাটি অ্যাসিড মেলে যা চুলকে সুস্থ রাখে।

প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় এই ছয়টি খাবার অন্তর্ভুক্ত করলে চুল পড়া অবশ্যই কমে যাবে। আর চুল সুস্থ রাখুন। কিন্তু আপনি কি জানেন যে কিছু খাবার খেলে আমাদের চুল ভালো হওয়ার পরিবর্তে খারাপ হয়ে যেতে পারে? আপনি যদি না জানেন, নীচে খুঁজে বের করুন.

চুল পড়া বাড়ায় এমন খাবার

নিচের খাবারগুলো প্রায়ই খেলে চুলের স্বাস্থ্য খারাপ হবে সেগুলো নিচে দেওয়া হলো:

চিনি

অতিরিক্ত চিনি বা মিষ্টি খেলে চুল পড়তে পারে। অতিরিক্ত চিনিও টাকের কারণ হতে পারে। তাই মিষ্টি পছন্দ করলেও পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে খান।

<h3! ময়দার খাবার

বাড়িতে সবসময় লুচি-পরোটা খাচ্ছেন? ময়দা দিয়ে তৈরি এই লুচি বা পরোটাই আপনার চুলের ক্ষতি করছে। কারণ এতে গ্লাইসেমিক ইনডেক্স বা জিআই-এর পরিমাণ হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট করে।

ফলে চুল গজানোর আশঙ্কা থাকে। শুধু ময়দা নয়, রুটিও একই কারণে খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিতে হবে।

ওয়াইন

অতিরিক্ত অ্যালকোহল সেবন চুলের ফলিকল নষ্ট করে দেয়। কিন্তু পরিমিত মদ্যপানও চুলের ক্ষতি করে। অ্যালকোহল চুলের স্বাভাবিক প্রোটিন কেরাটিন নষ্ট করে চুলকে দুর্বল করে।

গ্রিল

বারবিকিউ খেতে ভালোবাসেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া সত্যিই কঠিন! কিন্তু এ ধরনের খাবার খেলে চুল পড়ার পাশাপাশি হৃদরোগ ও ওজন কমার ঝুঁকি বাড়ে। গ্রিল খেলে মাথার ত্বক আরও তৈলাক্ত হয় এবং মাথার ত্বকের ছিদ্রও বন্ধ হয়ে যায়। এতে চুলের ক্ষতি হতে পারে।

কাঁচা ডিম

ডিম চুলের জন্য ভালো তাই কাঁচা খেতে পারবেন না। কাঁচা ডিম খাওয়া বিপরীত হতে পারে। কাঁচা ডিমের সাদা অংশে বায়োটিনের ঘাটতি থাকায় এই ভিটামিন কেরাটিন উৎপাদনে সাহায্য করে।

ডায়েট সোডা

এতে অ্যাসপার্টাম নামক কৃত্রিম মিষ্টি রয়েছে। গবেষণায় দেখা গেছে যে এটি চুলের ফলিকলের ক্ষতি করতে পারে। চুল পড়ে যেতে দেখলে ডায়েট সোডা অবশ্যই এড়িয়ে চলতে হবে।

আমরা চাইলেও এই খাবারগুলো খাই বা নাও খেতে পারি। তবে যতটা সম্ভব কম খাওয়ার চেষ্টা করুন। এত কিছু করা যায়।

তো বন্ধুরা, আশা করি পোস্টটি আপনাদের ভালো লাগবে। ভালো লাগলে অবশ্যই কমেন্ট করবেন। আর এরকম পোস্ট পেতে প্রতিদিন আমাদের সাইট ভিজিট করতে থাকুন। পরবর্তী পোস্টে দেখা হবে। সে পর্যন্ত ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন।

Shihab
Shihabhttps://skytube.ml
নিজে যা জানি তা অন্যকে জানাতে ভালোবাসি আর্টিকেলের মাধ্যমে। বিভিন্ন ওয়েব সাইটে লেখালেখি করি.
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here